Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Monday, November 13, 2017

জেনে নিন ৭ দিন পরপর হস্তমৈথুন করলে কোনো সমস্যাহবে

হস্তমৈথুন এমন একটি অভ্যাস যাএকবার কাউকে পেয়ে বসলে ত্যাগকরা খুবই কষ্টকর হয়ে দাড়ায়। শুধুতাই নয়, অভ্যাসটি এক সময়অনেকের যৌন জীবন বিপর্যস্তকরে তুলে।হস্তমৈথুনের কারণে দুইধরনের সমস্যা হয়-মানসিক সমস্যা ওশারীরিক সমস্যা:অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের ফলে যেধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে:অকাল বীর্যপাত (PrematureEjaculation)। অর্থাৎ খুব অল্প সময়েবীর্যপাত ঘটে। ফলে স্বামী তারস্ত্রীকে সন্তুষ্ট করতে অক্ষম হয়।বৈবাহিক সম্পর্ক বেশিদিনস্থায়ী হয় না।।বীর্য পাতলা হয়ে যায় (TemporaryOligospermia)- Oligospermia হলেবীর্যে শুক্রাণুর সংখ্যা কমে যায়।তখন বীর্যে শুক্রাণুর সংখ্যা হয় ২০মিলিয়নের কম। যার ফলে Maleinfertility দেখা দেয়। অর্থাৎ সন্তানজন্মদানে ব্যর্থতা দেখা দিতেপারে। একজন পুরুষ যখন স্ত্রীকেরমন করেন তখন তার পুরুষাঙ্গ থেকেযে বীর্য বের হয় সেই বীর্যেশুক্রাণুর সংখ্যা হয় ৪২ কোটির মত।বিজ্ঞান বলে, কোনও পুরুষেরথেকে যদি ২০ কোটির কমশুক্রাণু বের হয় তাহলে সেপুরুষ কোনও সন্তানের জন্মদিতে পারেন না। অতিরিক্তহস্তমৈথুন পুরুষের যৌনাঙ্গকেদুর্বল করে দেয়।Nervous system, heart, digestivesystem, urinary system এবং আরওঅন্যান্য system ক্ষতিগ্রস্ত হয় ।পুরো শরীরদুর্বল হয়ে যায় এবংশরীর রোগ-বালাইয়ের যাদুঘর হয়েযায়।চোখের ক্ষতি হয়।স্মরণ শক্তি কমে যায়।মাথা ব্যথা হয় ইত্যাদি আরওঅনেক সমস্যা হয় হস্তমৈথুনেরকারণে।আরেকটি সমস্যা হল Leakage ofsemen। অর্থাৎ সামান্যউত্তেজনায় যৌনাঙ্গ থেকে তরলপদার্থ বের হওয়া।শারীরিক ব্যথা এবং মাথাঘোরা।যৌন ক্রিয়ার সাথে জড়িতস্নায়ুতন্ত্র দুর্বল হওয়া অথবা ঠিকমত কাজ না করার পরিস্থিতিসৃষ্টি হওয়া।শরীরের অন্যান্য অঙ্গ যেমন: হজমপ্রক্রিয়া এবং প্রসাব প্রক্রিয়ায়সমস্যা সৃষ্টি করে। দ্রুতবীর্যস্থলনের প্রধান কারণঅতিরিক্ত হস্তমৈথুন।হস্তমৈথুনের ফলে অনেকেই কানেকম শুনতে পারেনহস্তমৈথুন ছাড়ারটিপস :কোন কোন সময় হস্তমৈথুন বেশিকরেন, সেই সময়গুলো চিহ্নিত করুন।বাথরুম বা ঘুমাতে যাওয়ার আগেযদি উত্তেজিত থাকেন, বা হঠাৎকোনও সময়ে যদি এমন ইচ্ছে হয়,তাহলে সঙ্গে সঙ্গে কোনওশারীরিক পরিশ্রমের কাজেলাগে যান। যেমন ডন বৈঠক বাঅন্য কোনও ব্যায়াম করতে পারেন।যতক্ষণ না শরীর ক্লান্ত হয়ে যায়,অর্থাৎ হস্তমৈথুন করার মত আরশক্তি না থাকে, ততক্ষণ পর্যন্তসেই কাজ বা ব্যায়াম করুন। স্নানকরার সময় এমন ইচ্ছে জাগলে শুধুঠাণ্ডা জল ব্যবহার করুন এবং দ্রুতবাথরুম থেকে বেরিয়ে আসুন।যতটা সম্ভব নিজেকে কাজে ব্যস্তরাখুন।ধৈর্য ধরতে হবে। একদিনেই নেশাথেকে মুক্তি পাবেন, এমন হবে না।একাগ্রতা থাকলে ধীরে ধীরে যেকোন নেশা থেকেই বের হয়ে আসাযায়। মাঝে মাঝে ভুল হয়ে যাবে।তখন হতাশ হয়ে সব ছেড়ে দেবেননা। চেষ্টা করে যান।হস্তমৈথুনে চরমভাবে এডিক্টেডহলে কখনোই একা থাকবেন না,ঘরে সময় কম কাটাবেন, বাইরেবেশি সময় কাটাবেন। জগিংকরতে পারেন, সাইকেল নিয়ে ঘুরেআসতে পারেন। ছাত্র হলেক্লাসমেটদের সাথে একসাথেপড়াশুনা করতে পারেন।লাইব্রেরি বা কফি শপে গিয়েসময় কাটাতে পারেন।সন্ধ্যার সময়ই ঘুমিয়ে পড়বেন না।কিছু করার না থাকলে মুভি দেখুনবা বই পড়ুন।ভিডিও গেম খেলতে পারেন। এটাওহস্তমৈথুনের কথা ভুলিয়ে দেবে।সেক্সুয়াল ব্যাপারগুলোএকেবারেই এড়িয়ে চলবেন।এধরনের কোনও শব্দ বা মন্তব্যশুনবেন না।ছোট ছোট টার্গেট সেট করুন। ধরুনপ্রথম টার্গেট টানা দুইদিনহস্তমৈথুন করবেন না। দুইদিন নাকরে পারলে ধীরে ধীরে সময়বাড়াবেন।যখন তখন বিছানায় যাবেন না।কোথাও বসলে অন্যদের সঙ্গ নিয়েবসুন।বন্ধুবান্ধব ও পরিবারের সবারসাথে বেশি সময় কাটান।ধ্যান বা মেডিটেশন করতেপারেন। যোগ ব্যায়াম করতেপারেন।ফোনসেক্স এড়িয়ে চলুনবিকেলের পরে উত্তেজক ও গুরুপাকখাবার খাবেন না।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages