Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Saturday, August 19, 2017

আপনার ফেসবুক গ্রুপ‌কে দ্রুত ফেমাস কর‌তে চান?? তাহ‌লে এই পোষ্টটা আপনার

যমজ সন্তানের সঙ্গে আমরা সবাইপরিচিত। কিন্তু কেন হয় যমজসন্তান ? এই প্রশ্নের উত্তর হয়তোআমরা সবাই জানি না।যমজ হতে পারে দুই ধরনের। যেমন:১)Fraternal২) Identical.Fraternal যমজদুটি ভিন্ন ডিম থেকে বিকাশলাভ করে। বেশিরভাগ যমজইfraternal । আর অসময়ে আকস্মিক ওপ্রারম্ভে গর্ভধারণের কারণেঅনেক সময় একই ডিম বিভক্ত হয়েIdentical যমজ সৃষ্টি করে।এবারে জানা যাক কারণগুলোকী ?১. পরিসংখ্যান বলছে, গতকয়েক বছরে যমজ সন্তানপ্রসবের হার বেড়েছে ৷চিকিৎসকরা মনে করছেন এরপ্রধান কারণ মাল্টিপলঅবুলেশন (Multiple Obulation)।অর্থাৎ বন্ধ্যাত্বেরচিকিৎসার জন্য যে ওষুধ সেবনকরা হয়, সেই ওষুধের সাইডএফেক্ট থেকে যমজ সন্তানেরজন্ম হয়৷২. টেস্টটিউব বেবিরক্ষেত্রে একাধিক ভ্রুণ মায়েরগর্ভে ট্রান্সফার করা হয়,এক্ষেত্রেও যমজ সন্তানেরজন্ম দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে৷৩. বেশি বয়সেপ্রেগন্যান্সি একটা বড় কারণবলে মনে করছেনচিকিৎসকরা।৪. বংশগত কারণকী কী সমস্যা হতে পারে ?১. মা এবং বাচ্চা, দু’জনেরশরীরেই বেশ কিছু জটিলতাদেখা যায়।২. মূলত মায়ের শরীরেরক্তাস্বল্পতা দেখা যায়৷প্রেসার বেড়ে যায়, রক্তক্ষরণএবং শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যাদেখা দেয়।৩ . ডেলিভারির পররক্তস্রাব বেশি হয়। Infectionএর ভয় থাকে।৪. ডেলিভারির সময় সমস্যাহতে পারে।৫. প্রি-টার্ম ডেলিভারিরক্ষেত্রে অনেক সময় মায়েরমৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে ৷বাচ্চার সমস্যা১. অপরিনত বাচ্চা২. ওজন কম হয়৩. নানা ধরনের জন্মগতত্রুটি৪. জন্মের সময় মৃত্যুও হতেপারে৷চিকিৎসা১. মাকে বেশি পরিমাণেবিশ্রাম নিতে হবে।২. পুষ্টিকর খাবার বেশিখেতে হবে।৩. ডেলিভারির আগেঅর্থাৎ প্রেগন্যান্সির সময়অ্যানেমিয়া ধরা পড়লেঅথবা রক্তক্ষরণ বাশ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখাদিলে ঘনঘন চেক-আপ করাতেহবে।৪. অ্যানেমিয়া ঠেকাতেআয়রন ফলিক অ্যাসিডেরপরিমান বাড়াতে হবে৷৫. ডেলিভারির নির্ধারিতসময়ের অনেক আগে উপযুক্তপরিকাঠামো আছে এমনহাসপাতালে ভর্তি করতেহবে।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages