Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Tuesday, March 28, 2017

মেয়েদের চোখে আদর্শ প্রেমিকের কী কী বৈশিষ্ট্য থাকা প্রয়োজন

মেয়েদের চোখে আদর্শ প্রেমিকেরকী কী বৈশিষ্ট্য থাকা দরকার? এই নিয়ে নানা মুনিরনানা মত। তবে বিস্তর পর্যালোচনার শেষেনারীর মনের মতো পুরুষ হয়ে ওঠার কয়েকটিটিপস দিয়েছেন মনোবিদ ডায়ানা কার্শনার।১) যত্নশীল পুরুষ মানেই ‘হট’ অনুভূতিপ্রবণপুরুষ মেয়েদের মনের অনেক বেশি কাছাকাছিথাকেন। সঙ্গীনি কোনো কারণে ভেঙেপড়লে তাঁকে আশ্বস্ত করতে কিছু আচরণজরুরি। ওঁকে বোঝার চেষ্টা করুন। কাঁধেআলতো হাতের স্পর্শ আর কিছু নরম কথাআপনাকে ওঁর মনের অনেক কাছাকাছি এনেদেবে।২) শিভালরি এখনো প্রাসঙ্গিক প্রেমেরপ্রশ্নে পৌরুষ প্রদর্শনের জবাব নেই। গাড়িতেওঠা-নামার সময় প্রেমিকা বা বান্ধবীর জন্য দরজাখুলে দেওয়া, সিগারেট ধরানোর আগে অনুমতিনেওয়া অথবা লিফটে ঢোকা বা বেরনোর সময়সরে দাঁড়িয়ে জায়গা করে দেওয়ার মতো ঘটনায়নারী মাত্রেই খুশি হন এবং পুরুষের আচরণেরতারিফ করেন।৩) পোশাক বাছাইয়ের কেরামতি মেয়েদেরমনে দাগ কাটতে স্মার্ট ড্রেস-আপের বিকল্পনেই। এ ব্যাপারে একটু সতর্ক থাকা দরকার। মনেকরা যাক কোনো পুরুষের একটু ভারী চেহারা,মধ্যপ্রদেশ কিঞ্চিত্ স্ফীত- সে ক্ষেত্রেঢিলেঢালা ক্যাজুয়াল টাইপ পোশাক মানানসই। আবারঅনেকে চেহারার তোয়াক্কা না করে টাইটজিনসে স্বচ্ছন্দ। কিন্তু খেয়াল রাখতে হবেসেই পোশাক আপনার পছন্দের নারীর মনেদাগ কাটছে কিনা। যদি আপনি লাল জামা পরলে তাঁরভালো লাগে, তবে মন রাখার জন্য তাই পরুন।নিজের পছন্দসই পোশাক পরবেন তখনই যখনবান্ধবী সেই ইঙ্গিত করবেন।৪) লালের জয় লাল জামা প্রসঙ্গে কার্শনারেরগুরুত্বপূর্ণ পর্যবেক্ষণ : নারীর মনে এই রংসম্পর্কে এক সুপ্তঅনুভূতি থাকে। পুরুষের অঙ্গে লাল রং নারীরঅবচেতনে এক শক্তিমান, নজরকাড়া এবংশরীরী ভাবমূর্তির ছবি আঁকে। তবে একইসঙ্গে, লাল রং পুরুষের চরিত্র থেকেভালোমানুষ অথবা দয়ালু মনের অধিকারীরমতো বৈশিষ্ট্য ছেঁটে ফেলে বলে বহুমেয়েই মনে করেন। কোন রাস্তায়হাঁটবেন, তা আপনাকেই ঠিক করতে হবে।৫) নিজের ত্রুটি লুকোনোর চেষ্টা করবেননা কার্শনারের মতে, যে পুরুষের মন ও স্বভাবভালো এবং যিনি নিজেকে উন্নত করার চেষ্টাকরছেন, তাঁকে মেয়েদের পছন্দ হবেই।এমনকি সেই পুরুষ যদি সঙ্গীনির স্বভাবে কিছুখুঁত দেখাতে পারেন, ধরা যাক হঠাত্ মেজাজহারানো বা সারাদিনের কাজের পর মুখ গোমড়াকরা- তাঁর কদর বাড়ে। তবে খুঁত ধরিয়ে দেওয়ারসময় সাবধান হতে হবে যাতে বান্ধবীর মনেআঘাত না লাগে।৬) ওঁর দুনিয়া গড়ার চেষ্টা করবেন না মনেরাখতে হবে, মেয়েরা পুরুষ সঙ্গীকেতাঁদের কষ্টের ও সমস্যার কথা বলেন মানে এইনয় যে তার সমাধান চান। আপনার কাজ একজনমনোযোগী শ্রোতার, পরামর্শদাতার নয়।বেশির ভাগ পুরুষই সঙ্গীনির সমস্যা শুনে তারচটজলদি সমাধান খোঁজার চেষ্টা করতে থাকেন।ভুলেও এই পথমাড়াবেন না কারণ এর জেরে মেজাজ হারাতেপারেন আপনার মনের মানুষটি।৭) যৌনতায় মেয়েরা ধীরে চলো নীতিতেবিশ্বাসী প্রেমের সম্পর্ক মন থেকেশরীরে গড়ানো শুধু সময়ের অপেক্ষা।কিন্তু বেশির ভাগ পুরুষ এই ব্যাপারে তাড়াহুড়োকরে খেসারতদেন। কার্শনার বলছেন, মেয়েরা অবশ্যইযৌনতায় আগ্রহী, কিন্তু এই বিষয়ে চটজলদি পথতাঁদের না-পসন্দ। ঘনিষ্ঠতা বাড়ার জন্য তাঁদেরবেশ কিছু সময় দরকার। সম্পর্কে আস্থার ভিতমজবুত না হলে, প্রেমের গভীরতার প্রমাণ নাপেলে তাঁরা আদপেই এই পথে হাঁটতে নারাজ।তাই মনের ইচ্ছায় লাগাম দিয়ে ধৈর্য ধরুন। কথা,ব্যবহার এবং আলতো স্পর্শ ধীরে ধীরেঅভীষ্টে পৌঁছতে সাহায্য করে।৮) পারফরম্যান্স নিয়ে অযথা উদ্বেগকরবেন নাযৌনতায় আশানুরূপ পারফর্ম করতে না পারলে হতাশহবেন না। মনে রাখবেন, একদিনের বিচ্যুতিপ্রেমিকার নজরে আপনাকে কখনোই খাটোকরে দেবে না। বরং তিনি নিজেই কিছুটাহীনমন্যতায় ভুগবেন এই ভেবে যেহয়তো নিজে এই বিষয়ে যথেষ্ট যত্নশীলহতে পারেননি। এই নিয়ে তিনি আলোচনাকরতে চাইলে অহেতুক লজ্জা বা অস্বস্তিতেভুগবেন না। মনে রাখবেন, এই খেলায় তিনিইআপনার পার্টনার। তবে বিষয়টি বারংবার ঘটতেথাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত বলেমনে করেন কার্শনার।৯) বার বার বলো… মেয়েরা পছন্দ করেনতাঁদের রূপের, স্বভাবের বা সাজপোশাকেরপ্রশংসায় পুরুষ পঞ্চমুখ হন। ধরুন এমন একটিপোশাক তিনি পরেছেন যা তাঁর যৌন আবেদনফুটিয়ে তুলেছে, এই পরিস্থিতিতে ভুরু নাকুঁচকে অকপটে তাঁর হট লুকস-এর তারিফকরুন।দেখবেন কপট রাগলেও আসলে তিনি খুশিইহয়েছেন।১০) চোখে চোখ রাখুন পার্কে বা কাফেতেআপনি হয়তো প্রেমিকার পাশে বসতে বেশিস্বচ্ছন্দ। ওঁর শরীরের স্পর্শে হয়তোআপনার সুখানুভূতি প্রকট হয়। কিন্তু ভুলবেন না,মেয়েরা কিন্তু প্রেমিকের চোখে চোখরেখে কথা বলা বেশি পছন্দ করেন।মুখোমুখি বসেও যদি আপনার দৃষ্টি অন্যদিকেঘোরে, ওঁরা মনে মনে অসন্তুষ্ট বোধকরেন। তাই মনোসংযোগ করুন। কার্শনারেরটিপস: যৌন মিলনের সময়ও যদি সঙ্গীনিরচোখে চোখ রাখা যায়, হাতেনাতে সুফলমিলবেই।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages