Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Sunday, February 26, 2017

বিটকয়েনের দাম বেড়েছে রেকর্ড পরিমান,তাই যারা বিটকয়েনের মাধ্যমে আয় করেন তাদের জন্য শুখবর।

শুক্রবার ১২০০ ডলার ছাড়িয়েছে এক বিটকয়েনের মূল্য, যা এখন পর্যন্ত এই ডিজিটাল মুদ্রার সর্বোচ্চ মূল্য।প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রে বিটকয়েন এক্সচেঞ্জ-ট্রেইডেড ফান্ড বা ইটিএফ নিবন্ধিত হতে যাচ্ছে- বিনিয়োগকারীদের এমন ধারণার কারণেই এ মূল্যবৃদ্ধি বলে জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি।ইটিএফ হচ্ছে এমন একটি তহবিল যার ভেতরে শেয়ার, বন্ড, সোনার বার বা বৈদেশিক মুদ্রার মতো সম্পদ থাকে এবং এই তহবিলের মালিকানা শেয়ারে ভাগ করে দেওয়া হয়। শেয়ারধারীরা এই তহবিলের অধীনে থাকা সম্পদগুলোর সরাসরি কোনো মালিকানা দাবি করতে পারেন না কিন্তু তারা পরোক্ষভাবে তারা এগুলো মালিকানা রাখেন। এই তহবিল থেকে আসা লাভের একটি অংশ শেয়ারয়াধারীরা পান আর কোনো কারণে এই তহবিল নগদ অর্থে পরিণত করে ফেললে অবশিষ্ট মূল্য শেয়ারধারীদের মধ্যে ভাগ হয়ে যায়।আর্থিক খাতে প্রচলিত ব্যবস্থা সমর্থক অনেকেই ওয়েবভিত্তিক ‘ক্রিপ্টোকারেন্সি’র সলালোচনা করেছেন। একে অনেক বেশি পরিবর্তনশীল, জটিল ও ঝুঁকিপূর্ণ বলে দাবি করেন তারা। সেইসঙ্গে এর অন্তর্নিহিত মূল্য নিয়ে তারা সন্দেহ প্রকাশ করেছেন, বলা হয়েছে সংবাদমাধ্যমটির প্রতিবেদনে।অন্যদিকে, ২০০৮ সালে চালু হওয়া বিটকয়েন ২০১০ সাল থেকে এ পর্যন্ত শুধু ২০১৪ সাল ছাড়া বাকি সময়ে অন্য যে কোনো মুদ্রার চেয়ে ভালো পারফর্ম করেছে। ২০১৪ সালে এটি সবচেয়ে বাজে পারফর্ম করা মুদ্রা ছিল বলে জানিয়েছে সিএনবিসি।এক বিটকয়েনের মূল্য ১২০০ ডলার ছাড়িয়ে যাওয়ার পর বাজারে বিটকয়েনের মোট মূল্য প্রায় দুই হাজার কোটি ডলারহয়ে গেছে।যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ইনসাইট-এর তহবিল ব্যবস্থাপক ও মুদ্রা বিনিয়োগ প্রধান পল ল্যামবার্ট বলেন, “আমাদের বিবেচনায় আসার জন্য বিটকয়েনের তারল্য এখনও যথেষ্ট নয়।”বিটকয়েনের মূল্য শনাক্তকারী তিনটি ইটিএফ ইতোমধ্যে মার্কিন সিকিউরিটিজঅ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)-এ অনুমোদনের জন্য দাখিল করা হয়েছে। এর মধ্যে একটির অনুমোদন নিয়ে ১১ মার্চ সিদ্ধান্ত নেবে এসইসি।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages