Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Wednesday, December 28, 2016

সকালের নাস্তা কেন খাবেন ?

কথায় আছে সকালের নাস্তা খেতে হয় রাজার মত। দুপুরের খাবার রাজপুত্রের মত। আর রাতের খাবার খেতে হয় ভিখারির মত। কথাটা মিথ্যা নয়। এই কথার পেছনে বৈজ্ঞানিক সত্যতা রয়েছে। খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞানীর গবেষণায় দেখেছেন ভরপেট সকালের নাস্তা খাওয়া খুবেই জরুরি।
ভারতের খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞানী পুজা মাখিজা বলেন, ‘সারাদিনের গুরুত্বপূর্ণ খাবারটা সকালেই খাওয়া উচিত। কেননা রাতভর অনাহারে থাকার পর সকালেই শরীর প্রথম খাবার পায়। সারাটা দিন কর্মক্ষম থাকার জন্য সকালেই পুষ্টিকর খাবার খেয়ে নিতে হবে।
পুজা বলেন, স্বাস্থ্য অনুযায়ী সকালের নাস্তা সেরে নেওয়া উচিত। একেক জন একেক রকমের কাজ করে ক্যালরি পোড়ান। তাই কাজ বুঝে, শরীরের গঠন বুঝে সকালের নাস্তার মেন্যু ঠিক করে নেওয়া ভালো।
পুষ্টি বিজ্ঞানী দীপ শিখা আওরওয়ালার মতে, রাতে সাত আট ঘন্টা না খেয়ে থাকার পর সকালে শরীর অনেকটা ক্লান্ত থাকে। তাই সকালের নাস্তাটা জম্পেশ হওয়া চাই।
পুষ্টিবিজ্ঞানীদের মতে সকালের নাস্তা কখানোই বাদ দেয়া উচিত নয়। সকালের নাস্তা না খেলে শরীর ক্লান্ত হয়ে পরে। ফলে কাজ-কর্মে মন বসে না। সেই সঙ্গে শরীর প্রয়োজনীয় ক্যালরি থেকে বঞ্চিত হয়। কাজের ব্যস্ততায় অনেকের হয়তো সারাদিন ভালো ভাবে খাওয়াই হয় না। তারপর যদি সকালের নাস্তাই কাট-ছাট করা হয় তবে বেশি দিন শরীর এই ধকল সইতে পারবে না। ফলে শরীর খারাপ হতে শুরু করবে।
পুষ্টিবিজ্ঞানী দীপশিখার মতে সকালের নাস্তায় থাকা উচিত পর্যাপ্ত পরিমানে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন ও ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার। সকালের নাস্তায় আদর্শ খাবার হল পাঁচটি পুষ্টি উপাদান সমৃদ্ধ খাবার। যা কিনা আপনার শরীরের সকল চাহিদা মেটাবে।
সকালের নাস্তায় খেতে পারেন, ভাত, রুটি, পরোটা, ডিম, দুধ, সসেজ, দই, ফ্রুটস, শাক-সবজি, জুস। এছাড়াও আপনার শরীর ও রুচি অনুযায়ী যেকোন পুষ্টিকর খাবার খেতে পারেন।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages