Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Friday, December 2, 2016

পান খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা

পানের উপকারিতা:
1) পান পাচন শক্তি বাড়ায়।
2) গলার সমস্যায় পান খুব উপকারী। আওয়াজ পরিস্কার করতে পান সাহায্য করে।
3) রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পান সাহায্য করে।
4) পান খেলে মুখের স্বাদ ফিরে আসে।
5) হৃদস্পন্দন নিয়ন্ত্রণ করে পান।
6) পান খেলে পেট পরিস্কার হয়।
7) সর্দি কাশি হলে পানের রসের সাথে মধু
মিশিয়ে খেলে উপকার পাওয়া যায়।
8) পানের সাথে গোলমরিচ, লবঙ্গ মিশিয়ে
খেলে কাশি কমে যায়।
9) মুখে ঘা হলে পানের মধ্যে কর্পুর দিয়ে
চিবিয়ে খেয়ে বার বার পিক ফেললে লাভ পাওয়া যায়।
10) পান খাওয়ার ফলে মুখে যে লালার সৃষ্টি হয় তা পাচন শক্তি বৃদ্ধি করে।
তবে পান খাওয়ার সময় কি কি বিষয় খেয়াল
রাখবেন?
A) পানের সঙ্গে জর্দা মিশিয়ে খেলে পানের
সব গুণ নষ্ট হয়ে যায়।
B) সব সময় খাওয়ার পরে পান খাওয়া উচিত। খালি পেটে পান খাওয়া উচিত নয়।
C)তবে বেশি পান খেলে মুখ ও চোখের রোগ
হতে পারে। পানের সঙ্গে বেশি সুপারি খাবেন না।
D) পানের সঙ্গে বেশি খয়ের খেলে ফুসফুসে
ইনফেকশান হয়।
E) পানে বেশিমাত্রায় চুন খেলে দাঁতের
ক্ষতি হয়।
F) যাদের জ্বর এবং দাঁতের সমস্যায় ভোগেন তাদের পান খাওয়া বন্ধ করে দেওয়া উচিত।
G) পান উষ্ণ এবং পিত্তকারক। শিশুরা এবং অন্তঃস্বত্ত্ব মহিলাদের পান খাওয়া উচিত নয়।
পান রুচিকারক, রক্ত পিত্তকারক, বলকারক, কামভাব বর্ধক, ঘা বর্ধক, কফনাশক, রাতকানানাশক, বায়ু নিবারক, মুখের দুর্গন্ধনাশক। ছাঁচি পান-সুপথ্য, রুচিবর্ধক, অগ্নিদীপক, পাচক ও কফ বাতনাশক।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages