Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Wednesday, December 28, 2016

স্বাস্থ্য সচেতনতায় ‘লাল চা’

চা হল আমাদের দৈনন্দিন জীবনের অতী গ্রহণীয় এবং স্বাস্থ্যকর একটি পানীয়। আড্ডা, অতিথি আপ্যায়নে চা-এর বিকল্প কিছু হতে পারে না। এর মধ্যে আমরা অনেকেই বিভিন্ন রকম চা পান করে থাকি। লাল চা এদের মধ্যে বেশ উপকারী। সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে, চা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় ও দেহের জীবকোষের ক্ষয় রোধ করে। আসুন একটু জেনে নেই লাল চায়ের গুণাবলি সম্পর্কে;
# লাল চায়ে ধমনীর কার্যক্রম তাৎপর্যপূর্ণভাবে বৃদ্ধি পায়।
# এই চা কিডনি রোগের জন্য উপকারী।
প্রিয়২৪.কম
# এটি রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়।
# লাল চা ডায়াবেটিস কমায়।
#এমনকি ওজন নিয়ন্ত্রনে সাহায্য করে।
গবেষণায় দেখা গেছে, চায়ের মধ্যে থাকা ক্যাটেচিন রক্তনালীর প্রসারণের জন্য দায়ী। দুধের মধ্যে থাকে ক্যাসেইন নামক একটি পদার্থ যা চায়ের মধ্যে থাকা ক্যাটেচিনকে বাধাগ্রস্ত করে। ফলে চায়ে দুধ মেশালে চায়ের রক্তনালী প্রসারণের ক্ষমতা একবারেই চলে যায়।
গবেষণায় এটিও এসেছে যে, ট্যানিন নামের যে উপাদান রয়েছে চায়ের মধ্যে তা খাদ্যনালীর ক্যানসারের কারণ হতে পারে। আর চুলায় চা পাতা ঘণ্টার পর ঘণ্টা জ্বাল দিলে চায়ের ট্যানিন বেশি বের হয়। দুধ চায়ের ট্যানিনকে আঁকড়ে ধরে এবং তাকে শরীরে মিশতে দেয় না। এক্ষেত্রে বেশি জ্বালের চায়ে দুধ মেশালে উপকার পাওয়া যেতে পারে।
দেহের ওজন কমাতে লাল চা খুব গুরুত্বপূর্ণ। যারা ওজন নিয়ন্ত্রন করতে চান তারা দেখে নিতে পারেন কোন চায়ে কত ক্যালরি।
দুধ চিনি ছাড়া লাল চা = ২ ক্যালরি
১ চামচ চিনিসহ লাল চা = ১৬ ক্যালরি
১ চামচ চিনি ও দুধসহ চা = ২৬ ক্যালরি
তাই বলা যায় লাল চা উচ্চরক্তচাপ, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস ও ওজন নিয়ন্ত্রনে অত্যন্ত কার্যকরী। আর সাম্প্রতিক গবেষণার ফল অনুযায়ী, হালকা জ্বালের লাল চা স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages