Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Tuesday, November 8, 2016

হারাম খাদ্য গ্রহনকারী দেহ জান্নাতে যাবে না। আপনাকে ছারতেই হবে আজকে।

হারাম খাদ্য গ্রহনকারী দেহ জান্নাতে যাবে না।
আপনাকে ছারতেই হবে আজকে। এখনই তওবা করতে হবে।
(১) সিগারেটের গায়ে লেখা থাকে "ধুমপান মৃত্যু ঘটায়":
আল্লাহর বাণী-"তোমরা নিজেদেরকে ধ্বংসের দিকে
নিক্ষেপ করো না।" [বাকারা-১৯৫]
সবাই জানে কীভাবে সিগারেট একজন মানুষকে তিলে
তিলে শেষ করে দেয়।
(২) সিগারেট-জর্দ্দা নেশা জাতীয় জিনিস:
নবী (সা) বলেছেন- " প্রত্যেক নেশার বস্তুই মাদক
(খামার) আর প্রত্যেক নেশার জিনিসই হারাম।"[মুসলিম-
২০০৩]
(৩) কেউ সিগারেট খেলে তার নেশা হতে বাধ্য, একটু
জর্দ্দা বেশি খেলেও নেশা হতে বাধ্য:
রাসূল (সা) বলেছেন- "যা অধিক সেবন করলে নেশার সৃষ্টি
হয় তা কম সেবন করাও হারাম।" [তিরমিযি-১৮৬৫, আবু
দাঊদ-৩৬৮১]
(৪) সিগারেট-জর্দ্দা অপবিত্র জিনিস:
আল্লাহ বলেন- "তোমাদের জন্য পবিত্র বস্তু হালাল ও
অপবিত্র বস্তু হারাম করা হয়েছে।" [আরাফ-১৫৭]
(৫) সিগারেট জর্দ্দায় কোন ফায়দা নেই, এটা অপব্যায়:
আল্লাহ বলেন- "নিশ্চয়ই অপব্যায়কারী শয়তানের ভাই।"
(সুরাঃ ইসরা::27)
(৮) আলিমদের মত: সিগারেট-জর্দ্দা খাওয়া কে শাইখ
মুহাম্মাদ বিন সালিহ আল উছায়মীন (রাহ), শাইখ
আবদুল্লাহ বিন বায (রাহ), আল্লামা মুহাম্মাদ বিন
ইবরাহীম সহ অসংখ্য উলামায়ে কেরাম হারাম বলেছেন।
মদিনার ফতোয়া বোর্ড অনুযায়ীও জর্দাকে হারাম বলা
হয়েছে। #1963 সালে Al Azhar. Ummul Kura. Madina Etc সহ
30 টি মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের আলেম বোর্ড জর্দাকে
হারাম ঘোষনা করেছেন আধুনিক গবেষণায় এটা প্রমাণিত
যে ধূমপান জর্দ্দা তামাক ক্যান্সারের অন্যতম কারন।
শেষ কথা :
রাসূল (সা) বলেছেন- "আমার কিছু উম্মত মদ পান করবে,
কিন্তু নাম দিবে ভিন্ন।" [ইবনে মাজাহ-৪০২০]
কী বুঝলেন ভাই?
[বিঃদ্রঃ সিগারেট-জর্দ্দা দুটোতেই তামাক পাতা
থাকে। এগুলোকে আলাদা করে দেখার কোন অবকাশ
নেই।]
.
আপনার কাছে গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে স্ট্যাটাসটি শেয়ার
করুন

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages