Breaking

Post Top Ad

Your Ad Spot

Sunday, October 30, 2016

বুয়েট আর্কিটেকচার ভর্তি পরীক্ষার বিস্তারিত

আর্কিটেকচার এর ভর্তি পরীক্ষা হয় বাংলাদেশে ৩টি
সরকারী ইঞ্জিনিয়ারিং এবং দুইটি সরকারী
বিশ্ববিদ্যালয়ে।এগুলো যথাক্রমে
বুয়েট,চুয়েট,রুয়েট,শাহজালাল প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে।বেসরকারী
বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঝে নর্থ সাউথ
বিশ্ববিদ্যালয়,আহসানুল্লাহ প্রযুক্তি
বিশ্ববিদ্যালয়,স্টেট ইউনিভার্সিটি,প্রাইম এশিয়া
ইউনিভার্সিটি ইত্যাদিতে বিষয়টি পড়ার সুযোগ রয়েছে।
আর্কিটেকচার এর উপরে জব সেক্টর ইত্যাদি বিষয়ক
আলোচনা আগে করে হয়েছে। প্রয়োজনে ভবিষ্যতে
আবারো করা হবে। সেটা তুলে রাখছি।
পরীক্ষা পদ্ধতিঃ
এবারে আসা যাক প্রশ্নোত্তর পর্বে। বুয়েট পরীক্ষার
সাথে অন্য সব জায়গার পরীক্ষার মিল আছে বলে সেটার
বেসিসেই আলোচনা করছি।প্রথমত পরীক্ষা পদ্ধতি।
বুয়েটে আর্কিটেকচারের ভর্তি পরীক্ষা ১০০০ মার্কের।
৬০০ হচ্ছে প্রকৌশল অনুষদ তথা বুয়েটের কমন ভর্তি
পরীক্ষা।আর এর সাথে ৪০০ মার্কের ফ্রী হ্যান্ড ড্রয়িং।
এখানে উল্লেখ্য যে মোট ১০০০ মার্কের ভিত্তিতেই
আর্কিটেকচারের মেধাতালিকা করা হয়। সরাসরিভাবে
বুয়েটের মূল মেধাতালিকা থেকে এটা আলাদা।
আর্কিটেকচারের পরীক্ষার্থীদের জন্যে ইউনিট ও
আলাদা লেখা থাকে।চান্স পেতে মোট ১০০০ মার্কেই
ভাল করতে হয়।শুধু অঙ্কনের ৪০০ মার্কে ভাল করা চান্সের
কোন গ্যারান্টি দেয় না।ধরা যাক ৪০০ তে কেউ ৩৫০
পেয়েছে। আর লিখিত এর ৬০০ তে পেয়েছে ২০০। তাহলে
১০০০ এ তার অর্জন ৫৫০। আবার কেউ অঙ্কনে পেল ৩০০
লিখিত তেও ৩০০।মোট ১০০০ এ আসে ৬০০। তাহলে ২য়
জনের পজিশান আগে আসবে আর্কিটেকচারে। তবে ১ম
জনের অবস্থান আগে আসবে প্রকৌশল মেধা তালিকায়।
আরেকটি প্রশ্ন থাকে যে আর্কিটেকচারের ফর্ম তুললে
কী অন্য অনুষদে ভর্তি হওয়া যাবে কী না। নিঃসন্দেহে।
আর্কিটেকচারে পরীক্ষা দেয়া মানে শুধু ১টা অনুষদের
জন্যে নিজের candidateship বাড়ানো। এর মানে
কোনভাবেই নিজের ক্ষেত্রকে সংকুচিত করা নয়।
সেক্ষেত্রে ৪০০ মার্কের অঙ্কনের হিসাব বাদ দিয়ে
বাকি ৬০০ তে পাওয়া মার্কের ভিত্তিতে আসা পজিশান
সাপেক্ষে অন্য যে কোন বিভাগ পেতে পারে যে কেউ।
এরপরের প্রশ্ন কী কী আসে পরীক্ষায়ঃ
বিষয়টি পরিবর্তনশীল। আসলে মোটামুটি একটা
আউটলাইন থাকলেও কোন প্যাটার্ণ বেজড ব্যাপার নেই।
তবে সেই আউটলাইনের হিসাবেই ধারণা দিচ্ছি।
# HUMAN FIGURE: বুঝা যাচ্ছে মানুষ আকতে বলবে। তবে
সেটা কোন কাজ করা অবস্থা এর।যেমনঃ একজন মহিলা
চা খাচ্ছেন চেয়ারে বসে,একজন মাঝি নৌকা বাইছেন
বা একজন নর্তকী নাচছেন ইত্যাদি।এখানে মানুষের
Anatomic অনুপাত আসলে দেখা হয়। আকৃতি যাতে ঠিক
থাকে হাত মাথা,হার পা ইত্যাদি যেন বেঢপ সমীকরনে
না চলে যায় আকার সময় এটাই মূখ্য।আর দেখা হয়
পরীক্ষার্থীর খেয়াল করার ক্ষমতা। নৌকা বাইবার সময়
মাঝির দুই ঝাত কীভাবে থাকে সেটা ফুটেছে কী না এসব
দেখা হবে।মানে posture দেখে জেনে আকতে হবে।
আরেকটা ব্যাপার, যা বলা হবে তার বাইরে এই প্রশ্নে
পরিপার্শ্বিক কিছু আকার দরকার নেই।
#POSTER /LOGO: পোস্টার মানে কোন অনুষ্ঠান,cause,
campaign এগুলোর প্রচারের জন্যে দেয়ালে টানানোর
কাগজ। এটা এমন হতে হবে যাতে নজরে আসে, এখানে
দেখা হয় বিষয় এর সাথে related কোন ব্যাপার একে
মানুষের চোখ টানার ব্যাপারটা। lettering এর
পারফেকশান ও দেখা হয় অনেক জায়গায়।এখানে
বিস্তারিত পাবে।
http://faculty.washington.edu/zander/posterDesign.pdf
লোগো হচ্ছে কোন প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানির প্রতীক।
প্রতিষ্ঠানের কাজ,লক্ষ্য ইত্যাদি প্রকাশ পায়
লোগোতে।লোগো হতে হবে ছোট। সহজে বোধগম্য ও
সুন্দর।যত অল্পতে পারা যায় শেষ করতে হবে এটা।যেমনঃ
জাতীয় সফটওয়ার এজেন্সি এর লোগো আক।
#CONDITIONAL SCENERY: এখানে তোমাকে INTERIOR আর
EXTERIOR এর একটা করে দৃশ্য আকতে বলা হবে।যেমনঃ
জেলে মাছ ধরছে বা বন্যাপীড়িত এলাকায় ত্রান
বিতরনের চিত্র বা ঢাকার রাস্তায় জ্যাম (Exterior) সুপার
মার্কেটের মাঝে বেচাকেনার চিত্র, একটি বিয়েবাড়ির
ভেতরের চিত্র এগুলো হতে পারে (Interior) এখানে তুমি
কত সিন্দর আকলে সেটার চেয়ে বড় ব্যাপার হল তুমি
আসলে আসলের কাছে যেতে পারলে কী না। ধর বিয়ে
বাড়ির অতি সুন্দর ছবি আকলে।স্কেচ লাইট শেড ফার্স্ট
ক্লাস। তবে বর-বউ আক নি বলে দেখে বিয়েবাড়ী মনে
হচ্ছে না,মনে হচ্ছে দিউয়ালী উৎসব। তাহলে প্রতিভা
কোন কাজে আসবে না।এখানে দেখা হয় ১ ও ২ পয়েন্ট
perspective সম্পর্কে ধারণা কার কত।নিচের লিঙ্কে কিছু
ধারণা পাবে।
http://www.artyfactory.com/perspecti…/perspective_
index.html
#COMPOSITION : এর মানে ব্যাপক এবং এটা সবচেয়ে
Tricky part, এর অর্থ ফেসবুকে বুঝান সম্ভব না, তাই http://
en.wikipedia.org/wiki/Composition_(visual_arts) এখানে
দেখে নিতে অনুরোধ জানাচ্ছি।এর মানে আপাতত
সাজানো। কিছু জ্যামিতিক আকৃতি যেমন
ত্রিভুজ,চতুর্ভুজ,সরল বা বক্ররেখা এগুলো সাজাতে হবে।
যেমনঃ দুইটি বৃত্ত ও চারটি সরলরেখার কম্পোজিশান
আক।এখানে এর বাইরে তুমি কিছু ব্যাবহার করতে পারবে
না। আর শেষে দেখবে সাজানোর পরে দেখতে সুন্দর
লাগছে কী না।
বিডিলাভ২৪.কম
আরেকটা প্রশ্ন আসে যে ডিটেইল (শেড শ্যাডো) এগুলা
কতটা দিব। যতটা না দিলেই না। আর যতটা তোমার সময় ও
সামর্থ্য তোমাকে দিতে বলে। তবে এগুলো সাধ্যমত
দিতে হবে।
আরেকটা প্রশ্ন হল কোচিং করতে হয় কী না। উত্তর
তোমার কাছে। তুমি যদি আত্মবিশ্বাসী হও যে একা
পারবে লাগবে না। যদি ভাব যে আমার কিছু জিনিস
জানা নাই করতে পার। তুমি আর্কিটেকচার নিয়ে কতটা
সিরিয়াস সেটাও একটা বিবেচনার ব্যাপার এখানে।
আসলেই পড়তে না চাইলে আমি বলব কোচিং কর না।
কারণ আর্কিটেকচার কোচিং করা করানো দুইটাই অনেক
মনোযোগ দাবী করে।তাছাড়া ইচ্ছা না থাকলে অনেক
ব্যাপার তোমাকে বুঝানো সম্ভব ও না। সহায়ক বই
বাজারে আনুষ্ঠানিকভাবে পাওয়া যায় না। তবে
কোচিং সেন্টারগুলো কিছু বই দিয়ে থাকে যা বুয়েটের
আর্কিটেকচারের শিক্ষার্থীদের হাতে করা। এগুলো
কোচিং থেকে দেওয়া হয়।ফার্মগেটে বা নীলক্ষেতে
খোঁজ নিতে পার সাথে।
নিচে ছবিতে মোটামুটি উদাহরন দেয়া হল। আর হ্যা,সব
আকতে হবে খালি হাতে শুধু পেন্সিলে। আর কোন জিনিস
ব্যাবহার করা যাবে না।
প্রিয়২৪.কম
শেষে আরেকটা প্রশ্ন “আকাআকিতে এক্সপার্ট হতে হয়
কী না” আমার মনে হয় এতক্ষনে পরিষ্কার হয়ে যাওয়া
উচিত। এক্সপার্ট দের জন্যে অনেক সুবিধা কারণ Framing,
composition sense এগুলা তাদের চর্চা করা থাকে। তবে
এগুলো এক্সপার্ট না হয়ে কেউ কমন সেন্স থেকেও পেতে
পারে। আসল কথা হল মনে যা থাকে সেগুলো বুঝানো।
এরপরেও আরো অনেক প্রশ্ন থাকবে সেটা স্বাভাবিক।
হয়ত আরো বড় সাহায্য লাগতে পারে।যে কোন
সাহায্যের জন্যে আমাদের ইনবক্স সব সময় খোলা।এছাড়া
সম্পুরক প্রশ্ন কমেন্টেও জানাতে পার। অন্য বিষয়ের
সাধারণ প্রশ্ন নিয়ে আরো আলোচনা হবে। ধন্যবাদ।

Post Top Ad

Your Ad Spot

Pages